পবিত্র ঈদুল আজহা’র আগে ঢাকা শহরের ভেতরে পার্সেল বুকিং এর শেষ তারিখ ১৮ জুলাই এবং ঢাকার বাইরে ১৫ জুলাই। বিস্তারিত জানতে: https://ecourier.com.bd/eid-ul-azha-2021/

eCourier Blog

Jun 14, 2014

ই-কুরিয়ার নিয়ে কিছু কথা

শুরুর দিকের কথা

বর্তমান বিশ্বে কুরিয়ার একটি দ্রুত বর্ধনশীল ব্যবসা। ভালো পরিকল্পনা এবং দক্ষ ব্যবস্থাপনাকে সঙ্গী করে কুরিয়ার একটি ছোটো প্রতিষ্ঠান থেকে একটি বড় প্রতিষ্ঠানে রুপ নিতে পারে। নিজে কুরিয়ার ব্যবসা শুরু করতে গেলে অবশ্যই চতুরতার পরিচয় দিতে হয়। এটা এমন একটা ব্যবসা যেখানে শুরুতে একটি মোটা অঙ্কের টাকা বিনিয়োগের মাধ্যমে প্রথম বছর বাজারে টিকে থেকে পরবর্তী বছর গুলোতে ধীরে ধীরে ব্যবসার প্রসার ঘটায়। এই ব্যবসার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলোর মধ্যে ব্যবসায় বিনিয়োগের পরিমান অনুমান, গ্রাহকের চাহিদা বুঝে সেবা প্রদান থেকে শুরু করে বাজারে অন্যান্য কুরিয়ার ব্যবসার সাথে নিজের ব্যবসার সুবিধাঅসুবিধা গুলো  তুলনামূলক বিশ্লেষণ করা হয়ে থাকে।

নতুন সেবা ইকুরিয়ার… 

ইকুরিয়ার ঢাকা, বাংলাদেশের একটি সাইকেল ভিত্তিক কুরিয়ার সার্ভিস। প্রথম অবস্থায় ইকুরিয়ারের নির্বাচিত গ্রাহক ইকমার্স ব্যবসায়ীর, তাদের অফিশিয়াল বিভিন্ন ধরনের নথিপত্র ও পার্সেল কাঙ্ক্ষিত জায়গায় পৌছে দিবে। তবে যারা  ইকমার্স ব্যবসায়ী নন তাদেরকেও এই ধরনের সেবা দিবে। ইকুরিয়ার এর গ্রাহক সেবার সুনির্দিষ্ট বৈশিষ্ট্যগুলো মধ্যে রয়েছে android apps, নিজস্ব ওয়েবসাইট, এসএমএস সুবিধা যার মাধ্যমে গ্রাহক যেকোনো সময় তার পণ্যর অবস্থান জানতে পারবে।  এছাড়া ইকুরিয়ার দিনের দুটো সময়ে অর্ডার নিয়ে কয়েকদিনে নয় একই দিনে পণ্য পৌছে দেবার মত সেবাও দিচ্ছে। এছাড়া গ্রাহকের দোরগোড়ায় পণ্য পৌছে দেবার। জন্য ইকুরিয়ারের রয়েছে Door to Door সুবিধা। আর তাই প্রিয় ব্যক্তিকে কিছু পাঠানোর জন্য এখনই ইকুরিয়ারে অর্ডার করুন এবং চিন্তামুক্ত থাকুন।

ইকুরিয়ারের উদ্দেশ্য

শুরুর প্রথম দুবছরের মধ্যে ইকুরিয়ারের উদ্দেশ্য গুলোর মধ্যে যা রয়েছেঃএকটি পরিসেবামূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা যার প্রথম লক্ষ্য গ্রাহক প্রত্যাশা পূরণ।ইকমার্স সাইট গুলোকে সঠিকভাবে ব্যবহার করে নিজেদের পেশাদার ব্যবসায়ী হিসেবে  গরে তোলা।সর্বাত্মক সেবা প্রদানের মাধ্যমে প্রতি বছর ৫০ভাগ গ্রাহক বৃদ্ধি।শুরুর প্রথম দুবছরের মধ্যে একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলা। ইকুরিয়ারের  প্রথম লক্ষ্য হচ্ছে পরিবেশবান্ধব উপায়ে ইকমার্স ব্যবসায়ীদের যুগপোযোগী সেবা প্রদান করা। গ্রাহককে আকর্ষণ করা এবং তাদের আকর্ষণ ধরে রাখতেই এই ব্যবসায়ে ইকুরিয়ার। ইকুরিয়ার যখন লক্ষে পৌছাবে তখন সবকিছুই পক্ষে থাকবে এবং তখন ইকুরিয়ারের প্রতি গ্রাহকের আশা ছাড়িয়ে যাবে।গ্রাহক সেবায় ইকুরিয়ার…মানসম্মত গ্রাহক পরিসেবাযোগাযোগ ব্যবস্থায় রয়েছে আমদের ওয়েবসাইটগ্রাহকের যেকোনো ধরনের জিজ্ঞাসা ও সেবার প্রদানে রয়েছে কল সেন্টারঅত্যাধুনিক tracking পদ্ধতি যার সাহায্যে গ্রাহক যেকোনো সময় তার পণ্যের অবস্থান জানতে পারবে গ্রাহক দোরগোড়ায় পণ্য পৌছে দেয়াস্বয়ংক্রিয় গ্রাহক সেবামূল্য স্থিতিশীলপণ্য প্যাকেজিংসার্বক্ষণিক ইমেইল এ যোগাযোগের সুবিধা   অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে ইকুরিয়ারের ওয়েবসাইট এবং অ্যাপস এর মাধ্যমে অর্ডার প্রদান।

সমাপ্তির কথা

বাংলাদেশের শিল্প ব্যবসায়ে  গ্রাহক সেবায় ইকুরিয়ার একটি উদ্বেগের ব্যবসা। যেখানে উদ্দেশ্য পরিবেশবান্ধব উপায়ে ইকমার্স ব্যবসায়ীদের যুগপোযোগী সেবা প্রদানের পাশাপাশি গ্রাহককে সর্বাত্মক সন্তুষ্টির সেবা প্রদানের আশ্বাস। বাংলাদেশের শিল্প ব্যবসায়ে ইকুরিয়ার ব্যবসা একটি নতুন মাত্রা আরম্ভের আভাস। বিপ্লব ঘোষ রাহুল ফাউন্ডার,ই-কুরিয়ার ১৪ জুন,২০১৪

Others Blog